একদিনে সর্বোচ্চ ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে

অনলাইন ডেস্ক: দেশে একদিনে ৬৩৫ জন ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। এ সংখ্যা চলতি বছরে একদিনে হাসপাতালে ভর্তি হওয়া রোগীর মধ্যে সর্বোচ্চ। সর্বশেষ আরো একজনের মৃত্যু হয়েছে। এর আগে গত ২৯ সেপ্টেম্বর সারা দেশে সর্বোচ্চ ৫২৪ জন ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিল। গতকাল সন্ধ্যায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ডেঙ্গুবিষয়ক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

সরকারের তথ্য বলছে, গতকাল সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় রাজধানীতে ৫১৮ জন ও রাজধানীর বাইরে ১১৭ জন ডেঙ্গু রোগী বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। এ পর্যন্ত ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে ৫৬ জনের মৃত্যু হয়েছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পাঠানো তথ্য অনুযায়ী, বর্তমানে ২ হাজার ১৫৮ জন ডেঙ্গু রোগী দেশের বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। এর মধ্যে ঢাকার ৫০টি সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছে ১ হাজার ৬৫৮ জন ও দেশের বিভিন্ন সরকারি জেলা ও মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছে ৫০০ জন।

গত সেপ্টেম্বরে দেশে মোট ৯ হাজার ৯১১ জন ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়। মারা গেছেন ৩৪ জন। সব মিলিয়ে এ বছরের জানুয়ারি থেকে গতকাল পর্যন্ত দেশে ১৬ হাজার ৭২৭ জন ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছে। এর মধ্যে চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়েছে ১৪ হাজার ৫১৩ জন রোগী।

সরকারের তথ্য বিশ্লেষণে দেশের ৫০টি জেলায়ই এ বছর ডেঙ্গু আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে ঢাকার বাইরে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হয়েছে কক্সবাজারে। জেলাটিতে এ পর্যন্ত ১ হাজার ১৮৬ জন আক্রান্ত হয়েছে। এর মধ্যে হাসপাতালে ভর্তি আছে ৭৮ জন। সুস্থতার পর হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র নিয়ে বাড়ি গিয়েছে ১ হাজার ৯০ জন। আর মারা গেছেন ১৮ জন।

দেশে ২০০০ সালের পর প্রতি বছর বহু মানুষ ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হচ্ছে ও মারা যাচ্ছে। করোনা মহামারী শুরুর বছর ২০২০ সালে ডেঙ্গুর প্রকোপ কিছুটা কম ছিল। তবে গত বছর ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে ২৮ হাজার ৪২৯ জন হাসপাতালে ভর্তি হয়। এর মধ্যে ১০৫ জনের মৃত্যু হয়। করোনা মহামারী শুরুর আগে ২০১৯ সালে এক লাখের বেশি মানুষ ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছিল। সে বছর প্রায় দুইশ মানুষের মৃত্যু হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *