তুরস্কের নাম পরিবর্তন : এখন থেকে ‘তুর্কিয়ে’

তুরস্কের নাম পরিবর্তন করা হয়েছে। আন্তর্জাতিক পরিসরে দেশটি এখন থেকে ‘তুর্কিয়ে’ হিসেবে পরিচিত হবে। তুরস্কের আবেদনের প্রেক্ষিতে এ নামটি গ্রহণ করেছে জাতিসঙ্ঘ।

বর্তমানে এটি বিশ্বে ‘টার্কি’ হিসেবে পরিচিত। বাংলাদেশে আবহমানকাল থেকে এটি তুরস্ক হিসেবে পরিচিত।

তুরস্কের কাছ থেকে আনুষ্ঠানিক এক আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে জাতিসংঘ ‘তুর্কিয়ে’ নামটি গ্রহণ করেছে। এখন অন্যান্য আন্তর্জাতিক সংস্থাতেও একই ধরনের পরিবর্তন আনা হবে।

দেশটির প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়ের এরদোগান গত বছর থেকে তুরস্ককে নতুন করে পরিচয় করিয়ে দেবার অংশ হিসেবে দেশের নাম ‘তুর্কিয়ে’ রাখার প্রচারণা শুরু করেন।

‘তুরস্কের মানুষের সংস্কৃতি, সভ্যতা এবং মূল্যবোধের সবচেয়ে ভালো বহিঃপ্রকাশ এবং প্রতিনিধিত্ব করার জন্য তুর্কিয়ে সর্বোত্তম,’ গত ডিসেম্বরে এমন মতামত প্রকাশ করেন এরদোগান।

তুরস্কের বেশিরভাগ মানুষ এরই মধ্যে তাদের দেশকে তুর্কিয়ে হিসেবে জানে। তবে ইংরেজিতে করা ‘টার্কি’ নামটি আন্তর্জাতিক মহলে এবং দেশের ভেতরেও ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত হয়।

প্রেসিডেন্ট এরদোগান যখন গত বছর নাম পরিবর্তনের ঘোষণা দেন, তখন থেকেই রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম টিআরটি তুর্কিয়ে শব্দটি ব্যবহার শুরু করে।

তারা জানায়, ‘টার্কি’ শব্দটি বড়দিন, ইংরেজি নববর্ষ এবং থ্যাঙ্কসগিভিং ডে-এর সাথে সম্পৃক্ত একটি পাখির নাম।

এছাড়া ক্যামব্রিজ অভিধানে ‘টার্কি’ শব্দটির অন্যতম অর্থ হচ্ছে – ‘যে জিনিস চরমভাবে ব্যর্থ’ অথবা ‘বোকা ব্যক্তি’।

সূত্র : বিবিসি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *