বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের দেশব্যাপী অনশন কর্মসূচির

কাজী বিপ্লব হাসান: বাংলাদেশ হিন্দুবৌদ্ধখ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের দেশব্যাপী অনশন কর্মসূচির অংশ হিসেবে মুন্সীগঞ্জেও পালিত হচ্ছে গণঅনশন কর্মসূচি।ধর্মীয় রাষ্ট্র নয়,  ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্র চাই, ধর্ম  যার যার রাষ্ট্র সবার “”সংগ্রাম চলছেই সংগ্রাম  চলবেই  ”  লক্ষ্য কে সামনে রেখে বাংলাদেশ হিন্দুবৌদ্ধখ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ তাদের সাত দফা  বাস্তবায়নের দাবীতে সারা দেশের মতো মুন্সিগঞ্জেও গণঅনশন কর্মসূচি পালন করে।

২২ অক্টোবর শনিবার বেলা ১০টায়  মুন্সিগঞ্জস্থ শহীদ মিনারে এই গণঅনশন কর্মসূচি পালিত হয়। বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ মুন্সীগঞ্জ জেলা বাংলাদেশ হিন্দুবৌদ্ধখ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের আয়োজনে এই গণঅনশন কর্মসূচি পালিত হয়।

২০১৮ সালে নির্বাচনী ইশতেহারে সরকারি দলের দেওয়া প্রতিশ্রুতিসমূহ ১। সংখ্যালঘু সুরক্ষা আইন প্রণয়ন,২।   বৈষম্য বিলোপ আইন প্রণয়ন, ৩।  দেবোত্তর সম্পত্তি সংরক্ষণ আইন প্রণয়ন ৪।   জাতীয় সংখ্যালঘু কমিশন গঠন, ৫। অর্পিত সম্পত্তি প্রত্যর্পণ আইনের যথাযথ বাস্তবায়ন ৬। পার্বত্য শান্তিচুক্তি পার্বত্য ভূমি কমিশন আইনের যথাযথ বাস্তবায়ন ৭। সমতলের আদিবাসীদের জন্য পৃথক ভূমি কমিশন গঠন বাস্তবায়নের লক্ষ্যে বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির ডাকে দেশব্যাপী গণঅনশন কর্মসূচির অংশ হিসেবে মুন্সীগঞ্জেও পালিত হয়েছে এই কর্মসূচী।

গণঅনশন কর্মসূচীতে অংশ নেন মুন্সীগঞ্জ  জেলা হিন্দুবৌদ্ধখ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের  সভাপতি এড. অজয় চক্রবর্তী,  , মুন্সীগঞ্জ জেলা হিন্দুবৌদ্ধখ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সুবীর চক্রবর্তী,  সহসভাপতি অভিজিৎ দাস ববি, মুন্সিগঞ্জ পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি সমর ঘোষ, সাধারণ সম্পাদক নবীন রায়, বিমল দাস,  তপন রাজবংশী,   বাসুদেব নাগ ,  স্মৃতি দাশ, স্বপন বিশ্বাস ,  অ্যাডভোকেট প্রদীপ পাল,  অধীর চন্দ্র দত্ত,  ভবতোষ চৌধুরী নূপুর,   সুমন লালসহ  জেলার ছয়  থানা থেকে আগত নেতৃবৃন্দ। 

গণঅনশন কর্মসূচি টি সঞ্চালনা করেন খোকন পোদ্দার। গণঅনশনে বক্তারা তাদের দাবি আদায়ে সোচ্চার হওয়ার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *