মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখানে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে।

 স্টাফ:  বুধবার ৯ ফেব্রুয়ারী সকাল সাড়ে ৮টায় উপজেলার  ইছাপুরা ইউনিয়নের মধ্যম শিয়ালদী গ্রামের নিজ বসত ঘরের ফ্যানের  সাথে ফাঁস দেয় মোঃ আলমগীর হোসেন (৩৫)। তিনি মোঃ তোফাজ্জল হোসেন ছেলে গত দুই মাস পূর্বে মালয়েশিয়া থেকে দেশে এসেছেন। তার দুই বছরের একটি কন্যা সন্তান নিয়ে মৃতর স্ত্রী বাবার বাড়ি বেড়াতে গিয়েছে বলে স্থানীয় লোকজন জানায়।স্থানীয়রা আরো জানান মৃত মোঃ আলমগীর হোসেন
ফজরের নামাজ জামাতের সহিত আদায় করেন এবং মা-বাবার কাছ থেকে পিঠা খেয়ে নিজ বসত ঘরে গিয়ে সকাল সাড়ে ৮টা হতে  ৯টার মধ্যে  অজ্ঞাত কারণে গলায় গামছা দিয়ে  নিজ ঘরের ফ্যানের সাথে  ফাঁস দেয়। স্থানীয় লোকজন ঘরের দরজা বন্ধ দেখে ডাকাডাকি করলে কোনো সাড়া না পেয়ে দরজা ভেঙে ঘরে প্রবেশ করে মৃত মোঃ আলমগীর কে ঝুলন্ত অবস্থা হইতে নামাইয়া ইছাপুরা উপজেলা  সরকারি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাহাকে মৃত ঘোষণা করেন । ঘটনাস্থলে সিরাজদিখান থানা পুলিশ উপস্থিত হয়ে সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরী করে লাশের ময়নাতদন্তের জন্য মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করেন।
এবিষয়ে সিরাজদিখান থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ বোরহান উদ্দিন জানান খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *