মুন্সীগঞ্জে খাবার হোটেল ভাংচুর, আহত -৪

তুষার আহাম্মেদ –  মুন্সীগঞ্জে একটি খাবার হোটেলে হামলা চালিয়ে ভাংচুরসহ ৪ জনকে বেধরক মারধর করা হয়েছে। মঙ্গলবার (২৫ অক্টোবর) দুপুরের দিকে পঞ্চসার ইউনিয়নের বণিক্যপাড়া এলাকায় এ সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন, হোটেল মালিক আলমগীর ঢালী (৪৫), আসিয়া বেগম(৭৫),কর্মচারী হারুন(৪৫) ও কর্মচারী কাজীমুদ্দিন (৫০)। আহতদের মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা দেওযা হয়েছে।
জানা গেছে, মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার পঞ্চসার ইউনিয়নের বণিক্যপাড়া এলাকার ভুলু সৈয়ালের ছেলে সন্ত্রাসী ইকবালের নেতৃত্বে কনক, আলামিনসহ ৪/৫জন মোটরসাইকেল করে একই এলাকার হোটেল ব্যবসায়ী আলমগীর ঢালীর খাবার হোটেলে গিয়ে মোটা অঙ্কের চাঁদা দাবী করে। ওই সময়  হোটেল ব্যবসায়ী আলমগীর ঢালী সন্ত্রাসীদের দাবীকৃত চাঁদা দিতে অপরাগতা প্রকাশ করলে সন্ত্রাসী ইকবাল ও তার সহযোগিরা হোটেলের আসবাবপত্র ও চেয়ার টেবিল ভাংচুর করে। তখন তাদের বাঁধা দিলে হোটেল ব্যবসায়ী আলমগীর ঢালী, তার মা আসিয়া বেগম ও দুই হোটেল কর্মচারী হারুন ও কাজীমুদ্দিনকে বেধড়ক মারধর করে গুরুত্বর আহত করা হয়।
এদিকে হোটেল ব্যবসায়ী আলমগীর ঢালী বলেন, সন্ত্রাসী ইকবালের নেতৃত্বে কনক, আলামিনসহ ৪/৫জন আমার হোটেলে প্রবেশ করে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবী করে। তখন আমি ওদের জিজ্ঞেস করি কিসের চাঁদা, কেনো চাঁদা দেবো? এরপরই ইকবালসহ তার সহযোগিরা হোটেলের আসবাবপত্র ও চেয়ার টেবিল ভাংচুর করে। আমাকে ও আমার মাসহ হোটেলের দুই কর্মচারীকে মারধর করা হয়।
এদিকে মুন্সীগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)  মো: তারিকুজ্জামান বলেন, পঞ্চসারের বণিক্যপাড়া এলাকায় রাস্তার পাশে একটি খাবার হোটেল ভাংচুর, কর্মচারীকে মারধরের ঘটনায় খবর পেয়েছি। অভিযোগ হাতে পেলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা  নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *