মুন্সীগঞ্জে ৫ মাসের শিশুকে চুরি করে ড্রেনে ফেললো গৃহকর্মী

তুষার আহাম্মেদ – মুন্সীগঞ্জে  ফাতেমা নামে  ৫ মাসের শিশুকে  চুরি করে ড্রেনে ফেলে দেওয়ার  ঘটনা ঘটেছে। সোমবার (১১ এপ্রিল) সকাল ১০ টায় সদর উপজেলার বজ্রযোগিনী ইউনিয়নের নাহাপাড়া গ্রামে এ ঘটে।
জানাগেছে, নাহাপাড়া এলাকার সাকিব খান   দিপুর কন্যা শিশু ফাতেমাকে গৃহকর্মি সুরমা (১৪) কাছে রেখে শিশুটির  মা ঘরের বাইরে কাজ করছিল। বাসায় আর কেউ না থাকায় বাড়ির গৃহকর্মি  বাচ্চাটাকে মুখ বেধে বাড়ি  পাশের মুরগী ঘরের ড্রেনে ফেলে রাখে।
গৃহকর্মি সুরমা এ বাড়িতে  তিন বছর যাবৎ কাজ করছিল। ঘরে এসে শিশুটির মা বাচ্চাকে দেখতে পায়নি। পরে অনেক খোঁজাখুঁজি করে  স্থানীয়রা মুরগী  পালনের ঘরের ড্রেন থেকে শিশু ফাতেমাকে আহত অবস্থায় জীবিত  উদ্ধার করে। বর্তমানে ফাতেমা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে  ভর্তি রয়েছে।
ফাতেমার মা সুমি আক্তার ঘটনার সত্যতা  নিশ্চিত করে জানান, সুরমা নামে ওই গৃহকর্মি তিন বছর যাবৎ আমাদের বাসায় কাজ করে। তার বাবার বাড়ি ময়মনসিংহ জেলায়।সে এমন নেক্কারজনক কাজ করবে আমরা ভাবতেও পারিনি। আমার মেয়ে বর্তমানে ঢাকা মেডিকেলে ভর্তি আছে। আল্লাহর দরবারে লাখো শুকরিয়া।
এদিকে এ ঘটনার সাথে জড়িত গৃহকর্মি সুরমাকে স্থানীয়রা আটক করে তার পরিবারকে খবর দিয়েছে। এমন নেক্কারজনক ঘটনায় নাহাপাড়ায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।
এ ব্যাপারে বজ্রযোগিনী ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য আনোয়ার হোসেন এমরান  বলেন, গতকাল আমাদের ইউনিয়ন পরিষদে ওই গৃহকর্মীকে নিয়ে আসা হয়েছিল। পরে পুলিশ তাকে এক গ্রাম্য পুলিশের পাহারায় রেখে গেছে।
এ ব্যাপারে মুন্সীগঞ্জ সদর থানার ওসি তদন্ত রাজিব খান  বলেন, এ বিষয়ে থানায় কেউ অভিযোগ দায়ের করেনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *