সারাদেশে সাংবাদিকদের উপর হামলার প্রতিবাদে মুন্সীগঞ্জ জেলা অনলাইন প্রেসক্লাব ও মুন্সীগঞ্জ রিপোটার্স ইউনিটের মানববন্ধন

কাজি বিপ্লব হাসান : বরাবরের মতো এবারও মুন্সীগঞ্জে সাংবাদিকদের উপর হামলা এবং গাড়ি ভাঙচুরের মতো ঘটনা ঘটেছে। সাংবাদিকগণ কোনো মতেই রেহাই পাচ্ছে না। কারণ শুধু একটাই, সাংবাদিক হলো সমাজের দর্পণ। সে জন্যই সকল অপরাধিরাই সাংবাদিকের শত্রæ। সুদখোর, ঘুষখোর, দুর্নীতিকারী, সরকারী ও বিরোধী দল এমনকী প্রশাসনও সাংবাদিকের কেউই বন্ধু নয়। সৎ ও নিষ্ঠার সাথে সংবাদ পরিবেশনের জন্য ই সবার শত্রু। সত্যের সাথে সাংবাদিকতা করা অনেক কঠিন হয়ে পড়েছে। এমন কী কিছু সাংবাদিক অপর সাংবাদিককে বন্ধু হিসেবে মেনে নিতে পারছে না। কিন্তু তাই বলে কী সাংবাদিকতা কী ছেড়ে দিবে? না ছেড়ে দিবে না। সত্যি কারের সাংবাদিকতা করেই যাবে। সাংবাদিকের উপর হামলা এইতো নতুন কিছু নয়। এখনও সাংবাদিকরা সত্যে তথ্য তুলে ধরে বলেই আজও সাংবাদিকদের অনেকেরই ভালো চোখে দেখে না। কিন্তু সাংবাদিকতা বা সংবাদকর্মী আছে বলেই সমাজের অনেক কিছুই তুলে ধরে।
এছাড়াও ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন, জেল জরিমানা আইন করা হয় সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে। তাই সাংবাদিগণ গত ২৬/০৯/২০২২ তারিখে সকাল ১১:৩০ মিনিটে মুন্সীগঞ্জ জেলা অনলাইন প্রেস ক্লাবের সামনে সবাই মিলে প্রতিবাদ ও মানববন্ধন করেন। এই মানববন্ধনে উপস্থিত থেকে আলোচনা করেন, মুন্সীগঞ্জ জেলা অনলাইন প্রেসক্লাব সভাপতি কাজী বিপ্লব হাসান, সাবেক সভাপতি শাসছুল হুদা হিটু, সোহাগ চোকদার, ফরহাদ হোসেন, শাহানাজ বেগম হিরা, নাসিমা সুলতানা রিতা। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালন করেন- মুন্সীগঞ্জ জেলা অনলাইন প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম। এই অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন সাংবাদিক তুষার আহম্মেদ, সালমান হাসান, লিটন মাহমুদ, আনিসুর রহমান রনি, মোহাম্মাম মাসুদ খান, ফয়সাল আহম্মেদ, ফরহাদ মোল্লা, শামীম হোসেন, ফরহাদ সরদার, সাকিব হাসান, রুপা বেগম, সাইদুল ইসলাম, রায়হান সরদার, সাজ্জাদ হোসাইন, কাজী আনসার, গাজী আসাদুজ্জামান বাবু, মিনহাজুল ইসলাম সহ আরো অনেকেই । গাড়ি ভাঙচুর, সংবাদ সংগ্রহে বাধা, মিথ্যা মামলার শাস্তি, জেল-জরিমানা ও ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সংস্কারের দাবিতে মানববন্ধনটি অনুষ্ঠিত হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *