হরতাল ডেকে ভাঙচুর করলে নিরাপত্তা বাহিনী তাদের কাজটি সঠিকভাবে করবে

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, ‘বিএনপি হরতাল ডাকতে পারে, ধর্মঘট ডাকতে পারে, আমাদের আপত্তি নেই। কিন্তু অহেতুক যদি যানবাহন বন্ধ করে, আমাদের জনসাধারণের কোনো অসুবিধার সৃষ্টি করে, জানমালের সমস্যা করে কিংবা কোনো রক্তারক্তি, ভাঙচুর করে, তাহলে আমাদের নিরাপত্তা বাহিনী তাদের কাজটি সঠিকভাবে করবে।’
১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আজ শুক্রবার বিকালে চট্টগ্রাম নগরের আন্দরকিল্লা সিটি করপোরেশন চত্বরে আয়োজিত এক অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন। শোকাঞ্জলি শীর্ষক এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে  মুক্তিযোদ্ধা সংসদ। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।
আরেক প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘লোডশেডিংয়ের মানে এই নয় যে আমাদের ক্যাপাসিটি নেই। আমাদের পূর্ণ ক্যাপাসিটি আছে। এ অবস্থার একটু উন্নতি হলে আমরা আবার আগের পর্যায়ে চলে যাব। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অনেক দূরদর্শী নেতা। তিনি গ্যাসভিত্তিক, কয়লাভিত্তিক, সোলারভিত্তিক এবং নিউক্লিয়ারভিত্তিক পাওয়ার প্ল্যান্ট করছেন। তাই আমাদের কোনো সমস্যা হবে না।’
অনুষ্ঠানে দেওয়া বক্তব্যে তিনি বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার হয়েছে। আমরা সব খুনির ফাঁসি কার্যকর দেখে যেতে চাই। সেদিন যারা খুনিদের ইন্ধন দিয়েছিল, তাদেরও জাতির সামনে তুলে ধরার প্রচেষ্টা চলছে। তারা বিশ্বাসঘাতক।’
‌‘খুনিরা ভালোভাবে জানত বঙ্গবন্ধুর রক্ত যার ধমনিতে প্রবহমান রয়েছে, তার কারণে তাদের একদিন বিচারের মুখোমুখি হতে হবে। আজ তাই হয়েছে। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলায় স্বাস্থ্য, শিক্ষা ও খাদ্যের অধিকার প্রতিষ্ঠিত হয়েছে তারই কন্যার হাত ধরে।’
মুক্তিযোদ্ধা সংসদ চট্টগ্রাম নগরের কমান্ডার মোজাফ্ফর আহম্মদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ছয় দিনব্যাপী এ শোকাঞ্জলি অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক।
মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের কেন্দ্রীয় নেতা সরোয়ার আলমের সঞ্চালনায় এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য শিরীণ আখতার ও জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মমিনুর রহমান। গনকন্ঠ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *